দৃষ্টি আকর্ষণঃ
আমাদের ভূবনে স্বাগতম। আপনাদের সহযোগিতাই আমাদের পাথেয়।
সংবাদ শিরোনাম
মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী বেসরকারি শিক্ষকরা জাতীয়করণ ফোবিয়ায় আক্রান্ত।। দাওয়াই আপনাকেই দিতে হবে চলছে ঢিলেঢালা লকডাউন! স্বাস্থ্যবিধি উধাও সংকটের বেড়াজালে বন্দি শিক্ষকদের জীবন শিক্ষা জাতীয়করণ হলে সবচেয়ে বেশি লাভবান হবে দরিদ্র জনগোষ্ঠী সর্বোপরি সরকার আগে জীবন পরে জীবিকা- ওবায়দুল কাদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে।। পিছিয়ে যেতে পারে আরো দু’মাস লকডাউনে নতুন ৬ শর্ত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয়বারে মতো শপথ নিয়েছেন মমতা ব্যানার্জী মার্কেট ও শপিংমলে ভিড়ের দৃশ্য দেখে মনে হয় না দেশে করোনা মহামারি চলছে! খাল খনন প্রকল্পের নামে নয়-ছয়ের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবধান বাণী
কালো টাকার মালিকরা রাষ্ট্রের অনিষ্ট সাধনে পারঙ্গম

কালো টাকার মালিকরা রাষ্ট্রের অনিষ্ট সাধনে পারঙ্গম

মোহাম্মদ আলাউদ্দিন মাস্টার।। ঘুষখোর, দুর্নীতিবাজ, ব্যাংক লুটেরা, শেয়ার লুটেরা, অর্থ পাচারকারী কালোটাকার মালিকরা সমাজ ও দেশের শত্রু। তারা রাষ্ট্রবিরোধী। রাষ্ট্রের অনিষ্ট সাধনে তারা পারঙ্গম। তারা যতই শক্তিশালী হোক না কেন, তাদের বিরূদ্ধে রুখে দাঁড়ানো সময়ের দাবি। লুটেরারা কালো টাকার পাহাড় গড়ে তুলেছে। আর কালো টাকার প্রভাবে তারা ধরাকে সরা জ্ঞান করছেন। তারা রাষ্ট্রযন্ত্রকে জিম্মি করে আখের গোছাতেই ব্যস্ত থাকেন। জনকল্যাণে তারা কখনই মনোনিবেশ করেন না। উল্টো রাজনীতিতে অনুপ্রবেশ করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করে তরুণ সম্প্রদায়ের মাঝে অনৈতিকতার বীজ বপন করে যাচ্ছেন। তাদেরকে প্রতিহত করতে না পারলে জাতির ভবিষ্যৎ অন্ধকারে অতল গহ্বরে নিপতিত হবে।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য উত্তরসূরি। আপনি নিজেও খ্যাতির চূড়ায় আসীন। বিশ্ববরেণ্য চিন্তাবিদ ও পরিকল্পনাকারী। বিশ্বের বিষ্ময় এবং বিশ্ববাসীর নিকট সমাদৃত একজন রাষ্ট্রনায়ক। দেশকে আপনি তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিণত করেছেন। আপনার গতিশীল নেতৃত্বে দেশ অনেকদুর এগিয়ে নিয়ে গেছে এবং যাবে। আপনি পেরেছেন, পারেন এবং পারবেন। তাই দেশবাসী দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে যার শিরা উপশিরায় বঙ্গবন্ধুর রক্ত প্রবাহিত তিনি আর যাই হোক লুটেরাদের কাছে নতি শিকার করতে পারে না।
বঙ্গবন্ধুর আজীবন লালিত স্বপ্ন ছিল শোষণ ও বৈষম্যহীন সমাজ ব্যবস্থা গড়ে তোলা। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্টায়ই আপনার নিরন্তর সংগ্রাম। সাধারণ জনগণ এখন রাষ্ট্রযন্ত্র কর্তৃক শোষিত না হলেও একশ্রেণির ঘুষখোর, দুর্নীতিবাজ, ব্যাংক লুটেরা, শেয়ার লুটেরা ও অর্থ পাচারকারীদের দ্বারা কোন না কোনভাবে শোষিত হচ্ছে। রাষ্ট্রের মাথাপিছু আয় এখন দুই হাজার মার্কিন ডলার। কিন্তু এ টাকা এখন মুষ্টিমেয় লোকের হাতে। সাধারণ জনগণ শুধু গণনার উপাদেয় মাত্র। তার বাস্তব প্রমাণ আমরা দেখেছি করোনা প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন মানুষের খাদ্যের জন্য হাহকারে। আপনার সময়োচিত পদক্ষেপের কারণে দেশের খেটেখাওয়া মানুষেরা এ ক্রান্তিকাল অতিক্রম করতে পেরেছে। ভবিষ্যতেও আপনার নেতৃত্বাধীন সরকারের ব্যাপক সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচির কারণে হয়তো মানুষ দু’বেলা দু’মুঠো খেয়ে পরে বাঁচতে পারবে। কিন্তু মধ্যম আয়ের তকমা গ্রহণকারী একটি দেশের ধনী গরীবের জীবনমানের পার্থক্য এত বেশি প্রকট হতে পারে না। তাহলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন আদৌ সম্ভব না।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দেশের সাধারণ খেটে খাওয়া জনগণ বিশেষ করে মধ্যবৃত্ত শ্রেণি আপনার সাথে আছে। তারা সকল বৈষম্য ও শোষণ থেকে মুক্তি চায়। যারা ঘুষ, দুর্নীতির মাধ্যমে কিংবা ব্যাংক ও শেয়ার বাজার লুপাট করে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করেছে, এখনও নানা টালবাহানার মাধ্যমে দেশের টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে তাদেরকে চিহ্নিত করে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করুন। বাজেটে কালো টাকা সাদা করার যতই সুযোগ দেয়া হোক না কেন, তারা তাতে সাড়া দেবে না। তারা দেশর বাইরে সেকেন্ড হোম বানিয়ে ব্যবসা বাণিজ্য সম্প্রসারণে সিদ্ধহস্ত। বিগত ১০ বছরে তা প্রমাণিত হয়েছে। এ যেন চোরে শুনে না ধর্মের কাহিনী এর মত ঘটনা। তাদেরকে পাকরাও করুন, দেশবাসী আপনার পাশে আছে এবং থাকবে। আপনিই একমাত্র আস্থা ও ভরসার স্থল। আপনার সংগ্রামের ফসল বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাকে কতিপয় নরাধম লুপাট করে খাবে তা হতে পারে না। তাই এখনই সময় তাদের পাকড়াও করার। কাজটি অত্যন্ত কঠিন হলেও আপনাকেই করতে হবে। কারণ আপনি যে নীলকণ্ঠী। বঙ্গবন্ধু এবং আপনার জন্মই হয়েছে দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য। সার্থক করে তুলুন বঙ্গবন্ধুর সেই অমোঘ বাণী “বিশ্ব দু’শিবিরে বিভক্ত; আমি শোষকের বিরূদ্ধে শোষিতের পক্ষে।”
লেখকঃ সম্পাদক, সাপ্তাহিক কালপুরুষ

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 www.kalpurushnet.com